মৌলিক স্বাক্ষরতা প্রকল্পে স্বাগতম

বাংলাদেশের সংবিধানে সকল নাগরিকের শিক্ষার সুযোগ প্রদানসহ দেশ হতে নিরক্ষরতা দূরীকরণের অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়েছে। ‘সবার জন্য শিক্ষা’ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ফোরামে অঙ্গীকারাবদ্ধ । এছাড়া বর্তমান সরকার তাদের নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দেশ থেকে নিরক্ষরতা দূর করবে। বিবিএস- ২০১৭ এর প্রতিবেদন অনুসারে দেশের ১৫ বছর এবং তদুর্ধ্ব বয়সের নারী-পুরুষের বর্তমান সাক্ষরতার হার ৭২.৩০%। অর্থাৎ এ বয়সের নারী-পুরুষের নিরক্ষরতার হার ২৭.৭%। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা (NFE) ম্যাপিং রিপোর্ট-২০০৯ অনুসারে দেশে ১১-৪৫ বছর বয়সী নিরক্ষর নারী-পুরুষের সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি ৭৩ লক্ষ। নিরক্ষরতার কারণে এই বিপুল জনগোষ্ঠী উন্নয়ন কার্যক্রমে সক্রিয় অংশ গ্রহণ করতে পারছে না । এ সকল নিরক্ষর জনগোষ্ঠীকে সাক্ষর করতে না পারলে কাঙিক্ষত উন্নয়ন সম্ভবপর নয়। এই বিপুল জনগোষ্ঠির নিরক্ষরতা দূরীকরণসহ তাদেরকে দক্ষ মানবসস্পদে পরিণত করার লক্ষ্যে সরকার দেশের বিদ্যমান ১৫-৪৫ বছর বয়সী ৪৫ লক্ষ নিরক্ষর নারী পুরুষকে কার্যকর জীবনদক্ষতা ভিত্তিক সাক্ষরতা প্রদান করার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর আওতায় সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে “মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প (৬৪ জেলা)’’ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ১ম ধাপে ১৩৪টি উপজেলায় ২৩,৫৯,৪৪১ জন নারী পুরুষকে মৌলিক সাক্ষরতা প্রদান করা হয়েছে। মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প (৬৪ জেলা) এর ২য় ধাপে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী “মুজিব বর্ষ” উদযাপন উপলক্ষ্যে ২১ লক্ষ নিরক্ষর নারী-পুরুষকে মৌলিক সাক্ষরতা প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। ৬০টি জেলার ১১৪ টি উপজেলায় ৩৫,০০০টি শিখন কেন্দ্রে ৭০,০০০জন শিক্ষকের মাধ্যমে ২১ লক্ষ নিরক্ষর পুরুষ ও মহিলাকে সাক্ষরতা প্রদান করা হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে দ্বিতীয় ধাপের ১১৪টি উপজেলার ২১ লক্ষ নিরক্ষর নারী-পুরুষকে সাক্ষরতা প্রদানের জন্য ০১ এপ্রিল ২০২০ তারিখ হতে একযোগে ৩৫০০০ শিখন কেন্দ্র (২ শিফট) চালু করার সিদ্ধান্ত থাকলেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শিখনকেন্দ্রে পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এ প্রকল্পের শিখন কেন্দ্রের অবস্থান নিরুপনের Map, নিরক্ষর শিক্ষার্থীদের ডাটাবেইজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ও শিখন কেন্দ্রের কার্যক্রমের মনিটরিং এর জন্য Apps Develop করা হচ্ছে ।

‘মুজিব বর্ষে’ মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের কার্যক্রম

নিয়মিত কার্যক্রম মৌলিক সাক্ষরতা সংশ্লিষ্ট পাঠদান
বিশেষ কার্যক্রম বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা
করোনা ও মহামারিতে করনীয় বিষয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা
শিক্ষার্থীদের খাতায় তিনটি স্লোগান শেখ হাসিনার বারতা, সবার জন্য সাক্ষরতা
মুজিব মানে স্বাধীনতা, মুজিব মানে বাংলাদেশ
শিশু গড়বে নতুন দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ
বিশেষ কার্যক্রম মুজিব জন্মশতবার্ষিকী সফল হোক